কৃষ্ণ কেশব | HelpBangla.com
image
Homeগান ও কবিতা ভান্ডারকৃষ্ণ কেশব

কৃষ্ণ কেশব

হে কৃষ্ণ করুণাসিন্ধু দীনবন্ধু জগৎপতে
গোপেশ গোপিকাকান্ত রাধাকান্ত নমস্তুতে।

জন্মাষ্টমী হলো আমার লাড্ডুগোপালের জন্মদিন।তাঁর চরণে আমার এই কবিতা উৎসর্গ করলাম। এই কবিতার পেছনে একটা গল্প আছে।যমুনা নদী শ্রীকৃষ্ণের নিকট প্রার্থনা করেছিল যে তার বড়ো সাধ কৃষ্ণকে একবার কোলে নিতে চান।কৃষ্ণ বলেছিলেন তাঁর জন্মের পর বসুদেব যখন তাঁকে যমুনা পেরিয়ে বৃন্দাবনে রেখে আসবে তখন তার ইচ্ছা পূরণ করবেন। তাই যমুনা পার হতে হতে কৃষ্ণ একবার যমুনার জলে পড়ে দিয়েছিলেন এবং কিছুক্ষণ পরে আবার ভেসে উঠেছিলেন।



কৃষ্ণ কেশব


নীতা কবি

নীল যমুনার কালো জল আজ
আনন্দে উচ্ছল
কৃষ্ণকে লয়ে বসুদেব চলে
দুঃখেতে বিহ্বল।
শ্রাবণের ধারা ঝরে ঝর ঝর
বিজলী জ্বলছে ঘোর খরতর
যেতে হবে তাকে নন্দের ঘর
বুকে লাগে বড়ো ডর।

যমুনা পূলীনে এসে পিতা ভাবে
ব্রজধামে সে কেমনে বা যাবে
সহসা যমুনা করে দিলো পথ
কদম্ব বৃক্ষ কাঁপে পৎ পৎ।

এমত সময়ে যমুনার মনে
সুপ্ত বাসনা জাগলো সেক্ষণে
একবার কোলে চাই যে মোহনে
তাই তো কৃষ্ণ মিললো গোপনে।

পিতার মনের আকুলি বিকুলি
কোথা গেল তাঁর পুত্র চঞ্চলি
হাসিমাখা মুখে দেখা দিলো দেব
ঘুচলো মনের যত সব খেদ।

অবশেষে পিতা গেলো ব্রজধামে
রেখে এলো তাঁরে ব্রজচাঁদ নামে
সেথা হতে এলো কাত‍্যায়নী মা
কংস জানলো সেই দেবকীকন‍্যা।

মারলো আছাড়ি নৃশংস কংস
দৈববানী হলো হবি রে ধ্বংস!
মথুরার রাজা প্রিয় কৃষ্ণসখা
শমনের সাথে হবে তোর দেখা!

সেই হতে সেথা গোপবাসী সব
নাচ দেখে আর করে কলরব
শ‍্যামলকিশোর বংশীধারী
কংসেরে মেরে হন কংসারী।

রাধাগোবিন্দের চরণ ধরি
যূগলমূরতী আহা! মরি মরি
যেখানেই থাকে পাপী, দূরাচার
তোমার আশীষে সব সংহার।
আমাদের পাঠিয়েছেন 31/8/19 তারিখে
নতুন নতুন তথ্য জানতে নিয়মিত সাইট ভিজিট করুন

2 months ago (September 4, 2019) 91 Views
Report

About Author (65)

Admin

প্রযুক্তির মুক্ত বাংলা HelpBangla.com নতুন তথ্য জানতে ও জানাতে, নব অভিলষে আপনাদের মাঝে আসা, নিজে টিপস লিখতে উপরে Sign up করে Login করুন।

image

comment closed

Related Posts

click for Home page